adhir chowdhury
ছবি: নিউজ ১৮

নয়াদিল্লি: আগামী ৩০ অগাস্ট  সাসপেনশন নিয়ে নিজের বক্তব্য রাখার জন্য প্রিভিলেজ কমিটিতে তলব করা হতে পারে কংগ্রেসের লোকসভার নেতা অধীর চৌধুরীকে। সেদিন তাঁর বক্তব্য শোনার পর অধীর চৌধুরীর উপর থেকে সাসপেনশন প্রত্যাহার করার সুপারিশ করবেন লোকসভার প্রিভিলেজ কমিটির চেয়ারম্যান সুনীল কুমার সিং। এ দিনের বৈঠকে প্রায় বেশিরভাগ সদস্যই অধীর চৌধুরীর উপর থেকে সাসপেনশন প্রত্যাহারের সুপারিশ করেছেন বলে সূত্রের খবর।

তাঁর সাসপেনশন নিয়ে অধীর চৌধুরীকে প্রিভিলেজ কমিটিতে তলব করা হবে কিনা, তা নিয়ে প্রিভিলেজ কমিটির বৈঠকে মতানৈক্য হয় ইন্ডিয়া এবং এনডিএ জোটের সাংসদদের।সূত্রের খবর, কংগ্রেস, তৃণমূল, ডিএমকে-র বিরোধী সাংসদদের যুক্তি, ইতিমধ্যেই শাস্তি পেয়ে গিয়েছেন অধীর। ফলত তাঁকে আর প্রিভিলেজ কমিটিতে তলব করার প্রয়োজন নেই।

 

পাল্টা বিজেপি সাংসদদের যুক্তি, যেহেতু প্রিভিলেজ কমিটিতে বিষয়টি এসেছে ফলে তাঁর বক্তব্য না শুনে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে না। প্রসঙ্গত, এক্ষেত্রে কোর্টের রায় আছে – কোনও সংসদ বা বিধায়কের সাসপেনশন শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট অধিবেশনে প্রযোজ্য হয়। এই বিষয়টি বৈঠকে উত্থাপন করেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। গত ১০ অগাস্ট লোকসভায় অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আলোচনায় জবাবি ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেই সময় বারবার বাধা দেওয়ায় অধীর চৌধুরীকে সাসপেন্ড করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর জবাবি ভাষণ শেষ হওয়ার পর অধীর চৌধুরীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তাবনা উপস্থাপন করেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী। তাঁর বিরুদ্ধে স্বাধিকারভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে এবং অভিযোগ পাঠানো হয়েছে কমিটিতে। স্বাধিকার কমিটির রিপোর্ট আশা পর্যন্ত সাসপেন্ড করা হয়েছে অধীর চৌধুরীকে।

তারপরেই কেন্দ্রের সমালোচনায় সরব ইন্ডিয়া জোট। তাৎপর্যভাবে অধীরের পাশে দাঁড়িয়েছে তৃণমূল। অধীরের সাসপেনশনের সমালোচনা করেন তৃণমূলের লোকসভার মুখ্য সচেতক কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

Published by:Debamoy Ghosh

First published:

Tags: Adhir Ranjan Chowdhury, Congress

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।