fabbdbcbcecc dcd
ছবি: আজকের পত্রিকা

চেলসির বিপক্ষে ড্র দিয়ে মৌসুম শুরু করা লিভারপুল আজ বড় জয় পেয়েছে। ৫৮ মিনিটে ১০ জনের দল হয়েও বোর্নমাউথের বিপক্ষে ৩–১ গোলের জয় পেয়েছে অল রেডরা। 

লিভারপুলের হয়ে গোল তিনটি করেছেন লুইস দিয়াজ, মোহাম্মদ সালাহ ও ডিয়েগো জোতা। বোর্নমাউথের হয়ে ব্যবধান কমানো গোল করেছেন অ্যান্টোইন সেমেনিও। 

লিভারপুল জয় পেলেও শুরুতেই অবশ্য গোল হজম করেছিল। লিভারপুলের ডিফেন্ডার ট্রেন্ট আলেক্সন্ডার আরনল্ডের ভুলে ৩ মিনিটে বোর্নমাউথকে দেন সেমেনিও। শেষে অবশ্য আরনল্ডের এই ভুল ক্ষতির কারণ হতে দেয়নি তাঁর সতীর্থরা। প্রিমিয়ার লিগে দলের হয়ে তাঁর ২০০ তম ম্যাচের মাইলফলক রাঙিয়ে দিয়েছেন সালাহ–দিয়াজরা। 

পিছিয়ে পড়ে গোল শোধ দিতে মরিয়া হয়ে পড়ে লিভারপুলের আক্রমণভাগের খেলোয়াড়েরা। বোর্নমাউথের গোলরক্ষক নেতো ও ক্রসবারের কারণে সমতায় ফিরতে ২৭ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় তাদের। জোতার সহায়তায় দলকে সমতায় ফেরান দিয়াজ। ৯ মিনিট পরেই দলকে এগিয়ে দেন সালাহ। পেনাল্টিতে পাওয়া গোলটির শট অবশ্য ঠেকিয়ে দিয়েছিলেন প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক। কিন্তু ফিরতি বল জালে পাঠিয়ে দেন মিশরীয় ফরোয়ার্ড। 

এই গোলে লিভারপুলের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় এককভাবে পাঁচে উঠে এসেছেন সালাহ। ১৮৬ গোলে এত দিন তাঁর সঙ্গে যৌথভাবে পাঁচে ছিল স্টিভেন জেরার্ড। ৩৪৬ গোলে সবার শীর্ষে আছেন কিংবদন্তি ইয়ান রাশ। আর কোনো গোল না হলে ২–১ ব্যবধানে বিরতিতে যায় দুই দল। 

বিরতির পর ১০ জনের দলে পরিণত হয় লিভারপুল। ৫৮ মিনিটে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন অ্যালেক্সিস ম্যাক অ্যালিস্টার। তবে আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডারের মাঠ ছেড়ে যাওয়ার সুবিধা নিতে পারেনি বোর্নমাউথ। উল্টো ৪ মিনিট পরেই তৃতীয় গোল হজম করে তারা। অল রেডদের হয়ে ৬২ মিনিটে শেষ গোলটি করেন জোতা। পর্তুগিজ স্ট্রাইকারের গোলের মধ্যে দিয়ে যেন একটা চক্রও পূরণ হয় লিভারপুলের। আক্রমণভাগের তিন খেলোয়াড়ই গোল পেয়েছেন।


সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।