image
ছবি: ঢাকা টাইম

খুলনায় গোপনে বৈঠকে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে এক নারীসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে গ্রেপ্তার নারীর স্বামী আলমগীর শিকদারের দাবি, তার স্ত্রী কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত নন। তার ছোট ছেলে তানজিলুর রহমান আমেরিকায় পিএইচডি গবেষণারত ও বুয়েটের সাবেক শিক্ষার্থী। ছেলে সাঈদীকে নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছে। এজন্য ছেলের মাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রবিবার রাতে খুলনার খালিশপুরে এ ঘটনা ঘটে।

আলমগীর শিকদার বলেন, আমার স্ত্রী তার বোনের বাড়িতে বেড়াতে যায়। সেখানে হঠাৎ করে পুলিশ আসে। তাকেসহ আরও কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায়। পরে শুনলাম জামায়াতকর্মী হিসেবে মামলা দেওয়া হয়েছে।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, খালিশপুর থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে অন্তর্ঘাতমূলক ষড়যন্ত্র করার জন্য সমবেত হওয়ার জন্য বিপুল পরিমাণ ধর্মীয় উগ্রপন্থি বিভিন্ন বই, পত্রিকা, ম্যাগাজিন, রেজিস্ট্রার ও অন্তর্ঘাতমূলক ষড়যন্ত্র করার কাজে ব্যবহৃত ৩টি ল্যাপটপ, পাসপোর্ট এবং চারটি মোবাইল ফোনসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন মো. রকিবুল ইসলাম, মো. তামিম ইকবাল ও আনিছা সিদ্দিকা। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে খালিশপুর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করা হয়েছে।

খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল গিয়াস বলেন, রাষ্ট্রবিরোধী গোপন বৈঠক করছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে খালিশপুর ফয়েজ উদ্দীন সড়কের ওই বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় একজন নারীসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে। পোস্টের সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। তাদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২১আগস্ট/কেএম)


সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।