Banner X.jpgoverlay positionbottomoverlay width pct
ছবি: প্রথম আলো

সমতা কর্মসূচিতে চাঁদার হার একটিই, আর তা হচ্ছে ৫০০ টাকা। প্রতি চাঁদা দাতার বিপরীতে সরকার অনুদান দেবে আরও ৫০০ টাকা করে।

সমতা কর্মসূচিতে ১৮ থেকে ৬০ বছর পর্যন্ত অর্থাৎ ৪২ বছর কেউ চাঁদা দিলে ৬০ বছরের পর থেকে চাঁদা দাতা মাসিক পেনশন পাবেন ৩৪ হাজার ৪৬৫ টাকা করে।

চাঁদা দেওয়ার জন্য এখন পর্যন্ত সোনালী ব্যাংকের সঙ্গেই চুক্তি করেছে পেনশন কর্তৃপক্ষ। উদ্বোধনের পর অগ্রণী, জনতা ও রূপালী ব্যাংকের সঙ্গেও বৈঠক হয়েছে। সেবা দেওয়ার কাজটিকে আরও সহজ ও মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে ভবিষ্যতে বেসরকারি কয়েকটি ব্যাংকের সঙ্গেও চুক্তি হওয়ার আলোচনা চলছে বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, সর্বজনীন পেনশন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে তিন দিন আগে দেশের ৬৪ জেলা প্রশাসকের (ডিসি) সঙ্গে জুম বৈঠক করেছে পেনশন কর্তৃপক্ষ। ডিসিদের বলা হয়, এ কর্মসূচি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাস্তবায়নে মানুষকে সহযোগিতা করতে হবে।

পেনশন কর্তৃপক্ষের একজন কর্মকর্তা জানান, ‘নিবন্ধন অনেকেই করছেন। কিন্তু নিবন্ধনকে আমরা আমলে নিচ্ছি না। আমরা দেখছি, প্রকৃতপক্ষে চাঁদা দিয়েছেন কতজন। চাঁদা দাতাই হচ্ছে প্রকৃত হিসাব, নিবন্ধনকারী নয়। আগ্রহীদের অনেকে নিবন্ধন করা যাচ্ছে কি না, তা পরীক্ষা করার জন্যও নিবন্ধন করেন।’

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।