ছবি: ইনক্লাব

লক্ষ্মীপুর পৌরসভার বাঞ্চানগর এলাকায় আলিয়া মাদরাসার সামনে শামসুল ইসলাম মিলনের দোকান ও বসতঘরে সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে অগ্নিকাণ্ডে টিনশেড দোকান ও বসতঘর পুড়ে ছাই হয়েছে। এসময় দগ্ধ হয়ে মফিজ উল্যাহ (৮০) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত মফিজ লক্ষ্মীপুর পৌরসভার রাজিবপুর এলাকার আমিন উল্যার ছেলে। বাঞ্চানগর এলাকায় তিনি মেয়ের বাসায় থাকতেন।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, বসতঘরের সামনের অংশে দোকান ছিল। রাতে দোকান বন্ধ করে সবাই ঘুমাতে যান। রাত ৩টার দিকে হঠাৎ আগুন জ্বলে ওঠে। পোড়া গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে সবাই ঘুম থেকে জেগে ওঠেন। আগুন ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। দ্রুত সবাই ঘর থেকে বের হয়ে যান। বৃদ্ধ মফিজ ঘর থেকে বের হতে পারেননি। তিনি দগ্ধ হয়ে মারা যান।

ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ডে দোকান ও বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী শামসুল ইসলাম মিলন বলেন, আমার শ্বশুর দীর্ঘদিন থেকেই আমাদের সঙ্গে থাকেন। অগ্নিকাণ্ডের পর তাকে ঘুম থেকে উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তিনি ঘর থেকে বের হতে পারেননি। আগুনে পুড়ে তিনি মারা গেছেন। আমার সবকিছু শেষ হয়ে গেছে।

লক্ষ্মীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক রঞ্জিত কুমার সাহা বলেন, আগুনে পুড়ে এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিক থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।


সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।