dbfaeebcfa ebbdb
ছবি: ইত্তেফাক

মেহেরপুরের গাংনীর বাঁশবাড়ীয়া গ্রামে মঙ্গলবার (২২ আগস্ট) মাধ্যমিক শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ সমিতির কার্যালয় দখলকে কেন্দ্র করে কথিত জমির মালিকদের সঙ্গে সমিতি লোকজনের সংঘর্ষে নারীসহ উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আহতরা হলেন গাংনী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেন (৫৫) ও হিজলবাড়ীয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আলমগীর হোসেন মিঠু। এছাড়াও শিক্ষক সমিতির আরও ১০ সদস্য রয়েছেন।

আহত অন্যরা হলেন বাঁশবাড়ীয়া গ্রামের নিজাম উদ্দীন (৪০), মোজাম হোসেন (৩৫), মিজানুর রহমান (২৮), হাবিবা খাতুন (৩৫)। আহতদের মধ্যে শিক্ষিকা সোহেলী খাতুন (২৮) ও সুমাইয়া খাতুন (২৫) কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। বাকিরা গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন।

স্থানীয় ও পুলিশ জানায়, মেহেরপুর-কুষ্টিয়া প্রধান সড়কের পাশেই গাংনী বাঁশবাড়ীয়া গ্রামের গাংনী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ সমিতির কার্যালয় রয়েছে। ক্রয় সূত্রে কয়েক বছর থেকে শিক্ষক সমিতি জমির মালিকানা দখলে রয়েছে।

সম্প্রতি বাঁশবাড়ীয়া গ্রামের কুতুব উদ্দীন ও নিজাম উদ্দীন গং জমির মালিকানা দাবি করে সেখানে অস্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করছেন। এ নিয়ে মঙ্গলবার সকালে দুপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হলে উভয় পক্ষের অন্তত  ২০ জন আহত হন। এসময় শিক্ষকরা মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে খবর পেয়ে গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ খালেক, গাংনী পৌরসভার মেয়র আহম্মেদ আলী ও গাংনী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

গাংনী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, এখনও কোনো পক্ষ থেকে অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।