social share watermark
ছবি: চ্যানেল অনলাইন

ভারতের কানপুরের যুবক কান্তিলাল নিগম। প্রতি রোববার স্থানীয় ভৈরব বাবার মন্দিরে যাওয়া তার ছোটবেলার অভ্যাস। অভ্যাস মেনে এবারো সেই মন্দিরে পূজা করতে গিয়েছিলেন তিনি। তবে বেরিয়ে দেখেন, তার কেনা নতুন জুতো জোড়া চুরি হয়ে গেছে। এতে রেগে গিয়ে পুলিশের কাছে এফআইআর দায়ের করেছেন তিনি।

আনন্দবাজার জানিয়েছে, এফআইআরে’র বয়ানে তিনি লিখেছেন, সৎ পথে উপার্জন করে জুতো কিনেছিলাম।

Bkash July

জানা যায়, কানপুরের একটি ইলেক্ট্রনিক সংস্থায় চাকরি করেন কান্তিলাল। প্রতি রোববার নিয়ম করে কান্তিলাল ভৈরব বাবার মন্দিরে যান। কিন্তু এত বছরেও যে অভিজ্ঞতা তার কখনো হয়নি, সেই অভিজ্ঞতা হলো শেষ বার গিয়ে। পূজা দিয়ে বেরিয়ে তিনি দেখেন, যে নীল জুতো জোড়া পরে মন্দিরে এসেছিলেন, তা সেখানে নেই। আশপাশ খুঁজেও জুতো জোড়া না পেয়ে পরে পুলিশের কাছে যান তিনি। দায়ের হয় এফআইআর। তবে জুতো চুরি নয়, সকলের নজর কেড়েছে কান্তিলালের লেখা এফআইআরের বয়ান।

তিনি সেখানে স্পষ্ট করে লিখেছেন, সৎ পথে উপার্জন করা টাকায় ওই জুতো জোড়া কিনেছিলেন। মন্দিরে পূজা দিয়ে ফিরে সেই জুতো আর খুঁজে পাচ্ছেন না। তার সন্দেহ, চুরি গিয়েছে জুতো জোড়া। পুলিশ যেন তদন্ত করে তার জুতো জোড়া ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করে।

Reneta June

কান্তিলাল বলেন, আমি দু’দিন আগেই নতুন জুতো কিনেছিলাম। নীল রঙের ওই জুতো আমার খুবই পছন্দের। আমি প্রতি রোববারই ভৈরব বাবার মন্দিরে পূজা দিতে আসি। আজ পূজা দিয়ে বেরিয়ে দেখি নতুন জুতো জোড়া নেই। অথচ আশপাশে আরও বহু জুতো পড়েছিল। চোর সে সব কিছুই নেয়নি। কেবল আমার নতুন জুতোই মনে ধরেছিল চোরের। তাই মনে হয়, আমারটাই চুরি করে নিয়ে গিয়েছে। সেই কারণেই আমি এফআইআর করেছি। পুলিশ আমার নতুন জুতো খুঁজে দিক।

 

Labaid

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।