ছবি: ইনক্লাব

দক্ষিণবঙ্গের প্রবেশদ্বার খ্যাত দৌলতদিয়া পাটুরিয়া নৌরুটের ৭ নং ফেরি ঘাটে পদ্মা নদীতে পন্যবোঝাই একটি ট্রাক ডুবে গেছে।

সোমবার ৬ মার্চ দিনগত রাত সাড়ে ১০ টার সময় দৌলতদিয়ায় ৭ নং ফেরি ঘাটে এই ঘটনাটি ঘটে।

ট্রাকটির সহকারি চালক পল্লব দাস বলেন, ঘোড়াঘাট থেকে ট্রাকে পিয়াজ রসুন লোড করে রাত ১০ টার দিকে দৌলতদিয়া ৭ নং ফেরি ঘাটে এসে সংযোগ সড়ক দিয়ে ফেরিতে উঠতে গেলে ফেরির টিকিট চেক ম্যান আমাদের গাড়িটি আটকে দেয় কারন পিয়াজ ও রসুনের উপরে কয়েকটি প্লাস্টিকের ড্রাম থাকায়। তখন সংযোগ সড়কের পাশেই ট্রাকটি চাপিয়ে চাকার নিচে জোগান দিয়ে হাওয়া চেক করছিলেন ট্রাকের সহকারি চালক পল্লব দাস। এ সময় ট্রাকের স্টাডিংয়ে বসে ছিলেন গাড়ির চালক। পরে ট্রাকটি ফেরিতে উঠতে গেলে তখন ট্রাকটির ব্রেকে আর কাজ করছিলো না সে সময় ট্রাকটি ফেরির পল্টন থেকে পদ্মা নদীতে পড়ে ডুবে যায়। যার নাম্বার ঢাকা ঢ ১৪-৮৮-৫৩, সে সময়পন্টুনের উপরে থাকা লোকজন পদ্মা নদী থেকে ট্রাক চালককে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সে খানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পিয়াজ ও রসুনের ব্যাপারী মিজানুর রহমান বলেন, এই ট্রাকে আমার ৩ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকার পিয়াজ রসুন ছিলো। সব রসুনও নদীতে ভেসে চলে গেছে। যে কয়েক বস্তা পিয়াজ নদী থেকে উদ্ধার হয়েছে সে সকল পিয়াজ নষ্ট হয়ে যাবে। এতে আমার বড় ধরনে ক্ষতি হয়ে গেলো।

আরিচা অঞ্চলের বিআইডব্লিউটিএ যুগ্মপরিচালক ও উদ্ধারকারী জাহাজ হামজার কমেন্ডার এস এম আজগর আলী বলেন, পদ্মা নদীতে পড়ে ডুবে যাওয়া পিয়াজ ও রসুন ভর্তি ট্রাকটি উদ্ধারের জন্য দু জন দক্ষ ডুবুরি ও দৌলতদিয়া নৌ পুলিশের সহযোগিতায় উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা আড়াই ঘন্টা চেষ্টা করে উদ্ধার কাজ সম্পন্ন করে।


সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।