News Bengla logo x
ছবি: নিউজ ১৮

কলকাতা: উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলওয়েতে পণ্য লোডিঙ প্রদর্শনের ক্ষেত্রে স্থির অগ্রগতি বহাল। পণ্য লোডিঙের ক্ষেত্রে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে ধারাবাহিক অগ্রগতি বজায় রেখেছে এবং ২০২৩-এর জুলাই মাসে ০.৭৪১ মিলিয়ন টন (এমটি) পণ্য লোড করেছে, যার ফলে বর্তমান অর্থবর্ষ ২০২৩-২৪-এর জুলাই, ২০২৩ পর্যন্ত মোট ৩.৩২০ মিলিয়ন টন পর্যন্ত পণ্য লোডিং হয়েছে। আগের বছরগুলোর তুলনায় ২০২৩-এর এপ্রিল থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত অন্যান্য বিভিন্ন সামগ্রীর বৃদ্ধির সাথে খাদ্য শস্য ও ডোলোমাইট লোডিং ভাল মার্জিনের অগ্রগতি নথিভুক্ত করেছে।

এই সময়কালে খাদ্যশস্য লোডিং ২৫.৪% বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ডোলোমাইটের লোডিং ৩.৮% বৃদ্ধি পেয়েছে। পূর্ববর্তী অর্থবর্ষে একই সময়ের তুলনায় কাঠ ও ব্যালাস্ট-এর মতো বিভিন্ন পণ্য সামগ্রীর লোডিঙও যথাক্রমে ৪৪.৪% ও ২৯.৬% বৃদ্ধি পেয়েছে। একটি উল্লেখযোগ্য প্রদর্শনের মাধ্যমে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে অধিক্ষেত্রের অন্তর্গত সবগুলি ডিভিশনে পণ্য লোডিঙের ক্ষেত্রে বিশেষ অগ্রগতি অর্জন করেছে, যার ফলে উল্লেখযোগ্য পরিমাণের পণ্য লোডিং রাজস্ব উৎপন্ন হয়েছে।

আরও পড়ুন: পুতুলের প্রতিবাদ! যাদবপুরের ঘটনা নিয়ে এবার সরব জলপাইগুড়ির ‘বিটকেল’!

অবশেষে, পণ্য লোডিঙের ক্ষেত্রে এই বৃদ্ধি অঞ্চলটির অর্থনৈতিক কার্যকলাপের বিকাশকেই নির্দেশ করে। পণ্য সামগ্রী পরিবহণ ব্যবস্থা উন্নত করতে এবং উন্নত গ্রাহক সংযোগ ব্যবস্থা প্রদান করতে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের পক্ষ থেকে একাধিক উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে। এই ধরনের উদ্যোগগুলির অংশ হিসেবে গ্রাহকদের দ্বারা বিভিন্ন সামগ্রীর সহজ পরিবহণের লক্ষ্যে ২০২৩-এর জুলাই মাসে অন্তর্মুখী ও বহির্মুখী পণ্য ট্রাফিক পরিচালনার জন্য আরও কিছু স্টেশন খুলে দেওয়া হয়েছে।

গ্রাহক সংযোগ ব্যবস্থা উন্নত করতে এবং পণ্য রাজস্ব বৃদ্ধি করতে তিনসুকিয়া ডিভিশনের অন্তর্গত ধামালগাঁও স্টেশনটি ১২-০৭-২০২৩ তারিখ থেকে বালু ও ব্যালাস্ট ট্র্যাফিক সহ সমস্ত পণ্য সামগ্রীর বহির্মুখী ও অন্তর্মুখী ট্র্যাফিকের পাশাপাশি পিওএল, পশুসম্পদ, বিস্ফোরক, অন্তর্মুখী কয়লা ও ক্রেন চালান ব্যতীত বহির্মুখী কয়লা ও ক্রেন চালানের ট্র্যাফিক পরিচালনার জন্য খোলা হয়েছে। তিনসুকিয়া ডিভিশনের অন্তর্গত লাকোয়া স্টেশনটি ১৪-০৭-২০২৩ তারিখ থেকে ০৩ মাস সময়ের জন্য অন্তর্মুখী লোহা ও পাইপ চালানের ট্র্যাফিক পরিচালনার জন্য খোলা হয়েছে।

আরও পড়ুন: চেক-এর পিছনে সই তো করেন, কিন্তু কেন করেন জানেন? স্বাক্ষর না করলেই বা কী হবে?

এর আগে ০৩-০১-২০২৩ তারিখ থেকে পিওএল, পশুসম্পদ, বিস্ফোরক, অন্তর্মুখী কয়লা ও ক্রেন চালান ব্যতীত বহির্মুখী কয়লা সহ বহির্মুখী ও অন্তর্মুখী সমস্ত পণ্য ট্র্যাফিক পরিচালনার জন্য খোলা হয়েছিল। পাথর ও চালের ট্র্যাফিকের মাধ্যমে বিডিইউ-এর ধারাবাহিক প্রচেষ্টার ফলে ২০২৩-এর জুলাই মাসে আলিপুরদুয়ার ডিভিশন অতিরিক্ত ৮২.১৩ লক্ষ টাকা রাজস্ব আয় করে।গ্রাহক সংযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন এবং নতুন টার্মিনাল খোলার ফলে পণ্যবাহী ট্রেনের লোডিং ও আনলোডিং বৃদ্ধি পেয়েছে। যার পরিণাম হিসেবে আগামী বছরগুলিতে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের রাজস্ব আয় উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পাবে।

Published by:Satabdi Adhikary

First published:

Tags: Indian Railway

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।